কংক্রিট স্থাপন (Placing of concrete)

0
161

কংক্রিট স্থাপন

প্রাথমিক জমাট বাধা সময় আরম্ভ হওয়ার পূর্বেই কংক্রিট স্থাপন এবং কম্পাকসন করা উচিত। কংক্রিট স্থাপনায় বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়ােজন। উঁচু হতে কংক্রিট ফেলে দিলে অপেক্ষাকৃত ভারি কণাগুলাে নিচে পড়ে যায় এবং কংক্রিট উপাদানসমূহের সেগ্রিগেশন ঘটে। কংক্রিটে এটা সর্বোতভাবে পরিহার্য। তাই আনুভূমিক স্তরে স্তরে কংক্রিট স্থাপন করতে হয়। এ জন্য কোন অবস্থাতে এক মিটারের বেশি উঁচু স্থান হতে কংক্রিট ফেলা উচিত নয়।

কংক্রিট স্থাপনার পূর্বে ফর্ম ওয়ার্ক শক্ত এবং ঠিক অবস্থানে আছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখতে হবে। ফর্ম ওয়ার্ক এর অন্তঃস্থ পার্শ্ব পরিষ্কার ও তৈলাক্ত হতে হবে। জোড় সংখ্যক স্তরে কংক্রিট স্থাপন করতে হবে। প্রতি স্তরে ১৫ সেমি থেকে ৩০ সেমি পুরুত্বের কংক্রিট স্থাপন করতে হবে। একটি স্তরকে কম্পাকশন করার পর পরবর্তী স্তরের কংক্রিট স্থাপন করতে হবে। শক্ত হওয়ার পূর্বেই কংক্রিট স্থাপন কার্য সমাপ্ত করতে হবে। কোন অবস্থাতে কংক্রিট মিশ্রণে পুনরায় পানি দেওয়া চলবে না। ফর্মার প্রতিটি স্থানে প্রয়ােজনীয় পরিমাণ কংক্রিট স্থাপন করতে হবে। কম্পাকশন করার সময় যাতে প্রয়ােজনের অতিরিক্ত কংক্রিটকে পুনঃস্থাপন (চালনা) করতে না হয়, সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। অন্যথায় সাটারিং, রিইনফোর্সমেন্ট এবং অন্যান্য দ্রব্য স্থানচ্যুত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কংক্রিট স্থাপনার সময় নিম্নলিখিত সতর্কতাগুলাে মেনে চলা উচিত।

১। অবিরামভাবে কংক্রিট স্থাপন করতে হবে। অনিয়মিত এবং খাড়াভাবে ফেলা যাবে না।

২। কংক্রিট স্থাপন করার পূর্বে ফর্ম ওয়ার্ককে ভালভাবে তৈলাক্ত করতে হবে।

৩। কংক্রিট স্থাপনার সময় ফর্ম-ওয়ার্ক ও রিইনফোর্সমেন্টকে আলােড়িত করা চলবে না।

৪। সেগ্রিগেশন পরিহার করতে হবে। তাই ১ মিটারের বেশি উঁচু স্থান হতে কংক্রিট ফেলা উচিত নয়।

৫। বৃষ্টির মধ্যে কংক্রিট স্থাপন করা উচিত নয়।

৬। ম্যাস (mass) কংক্রিটের ক্ষেত্রে প্রতি স্তরে ৩০-৪৫ সেমি এবং আর. সি. সি. এর ক্ষেত্রে ১৫-৩০ সেমি-এর বেশি পুরুত্বে কংক্রিট স্থাপন করতে নেই।

৭। হাঁটা অবস্থায় অর্থাৎ দাঁড়িয়ে কংক্রিট ঢালতে নেই।

৮। যতদূর সম্ভব খুব নিকট থেকে কংক্রিট ফেলতে হবে।

কিভাবে কংক্রিট স্থানান্তর করা হয়

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

1 × one =