বসুন্ধরা সিমেন্টের মূল উপাদান ক্লিংকার ও স্ল্যাগ

0
48
বসুন্ধরার সিমেন্ট তৈরিতে মূল উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয় ক্লিংকার ওস্ল্যাগ। উন্নত প্রক্রিয়ার কারণে সিমেন্টের গুণাগুণও খুব ভালো। এ সিমেন্ট ব্যবহার করে নিশ্চিন্তে ভারী স্থাপনা নির্মাণ করা যায়। এভাবেই বসুন্ধরা সিমেন্ট সম্পর্কে তথ্য-উপাত্ত গতকাল রাজধানীর সেগুনবাগিচায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত সেমিনারে তুলে ধরেন কর্মকর্তারা। জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. শহীদ উল্লা খন্দকারের সভাপতিত্বে সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের সচিব মো. মোজাহেদ হোসেন, সদস্য (ভূমি) আজহারুল হক, সদস্য (প্রশাসন-অর্থ) এনামুল হক, সদস্য (পরিকল্পনা) আকলিমা জহির রিতা। বক্তব্য দেন বসুন্ধরা সিমেন্টের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম হেলালী। বসুন্ধরা সিমেন্ট সম্পর্কে পাওয়ার প্রেজেনটেশন করেন বসুন্ধরা সিমেন্টের ব্যবস্থাপক (টেকনিক্যাল সাপোর্ট) প্রকৌশলী সরোজ কুমার বড়ুয়া। এতে তুলে ধরা হয়, বসুন্ধরার সিমেন্ট তৈরির প্রক্রিয়া ও গুণাগুণ।
সেই সঙ্গে সিমেন্টের প্রকারভেদের বিষয়টিও। বলা হয়, বসুন্ধরা সিমেন্ট তৈরি করা হয় আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে। সিমেন্ট তৈরির মূল উপাদান হচ্ছে ক্লিংকার ও জিপসাম। এ ছাড়া ফ্ল্যাশ ফার্নেস স্ল্যাগ, ফ্লাইওয়েশসহ আরও বেশ কিছু উপাদান। তবে বসুন্ধরা সিমেন্ট তৈরির ক্ষেত্রে ক্লিংকার ও স্ল্যাগ বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে, যাতে সিমেন্টের গুণমান ভালো থাকে।
বাজারে থাকা অনেক সিমেন্ট পানিতে ঢালার পর গরম হয়ে যায়, যা ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে ঝুঁকি তৈরি করে। এদিক থেকে বসুন্ধরা সিমেন্ট উত্তপ্ত বা গরম হয় না, যার ফলে এ সিমেন্ট ব্যবহার করলে ভবনে কোনো ধরনের ফাটল কিংবা অন্য কোনো সমস্যার সৃষ্টি হয় না। এক কথায় কোনোরকম সমস্যাই দেখা দেবে না। প্রকৌশলী সরোজ কুমার জানান, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এর বিশেষজ্ঞ দ্বারা পরীক্ষিত বসুন্ধরা সিমেন্টের আরেকটি বড় গুণ হচ্ছে এটি উপকূলীয় লবণাক্ত এলাকায় ভবন, ব্রিজ, কালভার্ট বা অন্যান্য স্থাপনা নির্মাণের জন্য বিশেষ কার্যকর ও উপযোগী।
এ ছাড়া ভারী স্থাপনা, বৃহদাকার সেতু, বহুতল ভবন ও মাটির নিচে ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে বসুন্ধরা সিমেন্ট অন্য যে কোনো সিমেন্টের তুলনায় বহুগুণে কার্যকর ও উপযোগী। জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. শহীদ উল্লা খন্দকার বলেন, সবাই তার নিজের বাড়িতে ভালো সিমেন্টই ব্যবহার করতে চান। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলতে হলে অবশ্যই ভালো জিনিসটি বেছে নিতেহবে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

3 × 2 =