আর.সি.সি একমুখি স্ল্যাব ডিজাইনের নীতি

0
166
আরসিসি একমুখী সলিড স্ল্যাবের নুন্যতম পুরুত্ব:
স্ল্যাব ডিফ্লেকশনের পরিমান বিবেচনা ব্যাতিরেকে ACI কোড অনুযায়ী ওয়ান ওয়ে স্ল্যাব এর নুন্যতম পুরুত্ব 
বা গভীরতা হবে,
  1.  সাধারনভাবে স্থাপিত স্ল্যাবের নুন্যতম পুরুত্ব, t=L/25
  2.  আংশিক বিছিন্ন  স্ল্যাবের নুন্যতম পুরুত্ব,   t=L/30
  3.  সম্পূর্ণ অবিছিন্ন স্ল্যাবের নুন্যতম পুরুত্ব,    t=L/35
  4. ক্যান্টিলিভার স্ল্যাবের নুন্যতম পুরুত্ব,       t=L/12
    

one way slab
স্ল্যাবের আনুমানিক পুরুত্ব বা গভীরতা:
t=প্রতি মিটার কার্যকারী স্প্যান দৈর্ঘ্য 3.3 সেমি থেকে 4
 সেমি ধরা হয়।
অর্থাৎ, t=0.033L থেকে 0.04L ধরা হয়।
ACI কোড অনুযায়ী ওয়ান ওয়ে স্ল্যাব এর পুরুত্ব 7.5 সেমি
 এবং মেঝে স্ল্যাবের পুরুত্ব 9 সেমি এর কম হওয়া উচিত নয়।
 তবে ACI কোড অনুসারে বর্তমানে 10 সেমি এর কম পুরুত্বের
 স্ল্যাব ঢালাই করা হয় না। 
 
একমুখী স্ল্যাব এ সংকোচন ও তাপীয় রডের প্রয়োজনীয়তা:
ঢালাই করার পর শক্ত হওয়ার ফলে কংক্রিটের সংকোচন ঘটে এবং তাপমাত্রার তারতম্যের ফলে কংক্রিট 
সংকুচিত ও প্রসারিত হয়।সেজন্য স্ল্যাবের মধ্যে সৃষ্ট পীড়ন প্রতিরোধ করার জন্য রড ব্যবহার করা হয়।
একমুখী স্ল্যাবে ব্যবহৃত প্রধান রডগুলো এদের আড়াআড়ি দিকের ফাটল সৃষ্টিকারী তাপ পীড়ন প্রতিরোধ করতে
পারে না। সুতরাং এ তাপ পীড়ন প্রতিরোধের জন্য প্রধান রডের আড়াআড়ি তাপীয় রড ব্যবহার করা হয়।
 
তাপীয় রডের নুন্যতম পরিমাণ:
  • মসৃণ বারের ক্ষেত্রে = 0.0025bt
  • ডিফর্মড বারের ক্ষেত্রে = 0.0018bt থেকে 0.002bt 
এখানে bt= স্ল্যাবের বিবেচিত ফালির প্রস্থচ্ছেদীয় ক্ষেত্রফল
 
আর.সি.সি একমুখি স্ল্যাব ডিজাইনের ধাপসমুহ:
একমুখী স্ল্যাব ডিজাইনের ক্ষেত্রে স্ল্যাবের প্রস্থকে স্প্যান হিসেবে ধরা হয় এবং প্রস্থ বরাবর 1 মিটার বিশিষ্ট 
ফালি ধরে বীমের ন্যায় ডিজাইন করা হয়।
ধাপ ১: ডিজাইন লোড নির্ণয়
  • স্ল্যাবের নিজস্ব ওজন: স্লাবের গভীরতা নির্ণয় করে একক ওজনের সাহায্যে প্রতি বর্গমিটার স্ল্যাবের
     ওজন ণির্ণয় করা হয়।
  • স্ল্যাবের প্রতি বর্গমিটারে লাইভ লোড ও অন্যান্য ডেড লোডের পরিমাণ।
  • স্প্যানের উপড় মোট বিস্তৃত লোড
 W={(স্ল্যাবের নিজস্ব ওজন+লাইভ লোড ও অন্যান্য লোড)X স্প্যান দৈর্ঘ্য}কেজি
 
ধাপ ২: সর্বোচ্চ শিয়ার
  1. সাধারনভাবে স্থাপিত/অবিছিন্ন স্ল্যাবের ক্ষেত্রে, সর্বোচ্চ শীয়ার V=W/2 kg হবে।
  2. আংশিক অবিছিন্ন স্ল্যাবের ক্ষেত্রে,
  • বিছিন্ন প্রান্তে শিয়ার বল, V=0.4W
  • অবিছিন্ন প্রান্তে শিয়ার বল, V=0.6W 
ধাপ ৩: সর্বোচ্চ বেন্ডিং মোমেন্ট
  • সাধারনভাবে স্থাপিত হলে M=(wl/8)X100 kg-cm 
  • পুরোপুরি অবিছিন্ন হলে M=(wl/12)X100 kg-cm 
  • আংশিক অবিছিন্ন হলে M=(wl/10)X100 kg-cm 
 
ধাপ ৪: স্ল্যাবের গভীরতা
 
স্ল্যাবের কার্যকরী গভীরতা, d=route over(M/Rb)
এখানে M= সর্বোচ্চ বেন্ডিং মোমেন্ট
     b= বিবেচিত ফালির প্রস্থ=1m=100cm
এবং R=1/2 fcjk
   K=n/{n+(fs/fc)}
   J=1-(k/3)
মোট গভীরতা =কার্যকরী গভীরতা+(রডের ব্যাস/২)+মুক্ত কভারিং
উল্লেখ্য যে, মোট গভীরতার মান আনুমানিক পুরুত্বের চেয়ে বেশি হবে না।
 
ধাপ ৫: টান রডের ক্ষেত্রফল
এক মিটার স্ট্রিপ এর জন্য রিইনফোর্সমেন্ট এর পরিমাণ As=M/fsjd
রডের কেন্দ্র থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত দুরুত্ব S=(bxas)/As 
যেখানে b=100cm
এবং as=নির্ধারিত সাইজের একটি রডের ক্ষেত্রফল,প্রধান রডের সর্বোচ্চ ব্যবধান স্ল্যাবের 
পুরুত্বের 3 গুন বা ৪৫ সেমি এর বেশি হবে না। 
 
ধাপ ৬: শিয়ার পীড়ন 
  • সাপোর্টে সর্বোচ্চ শিয়ার পীড়ন, V= V/bd 
  • সাপোর্ট থেকে দুরুত্বে শিয়ার স্ট্রেস, V= Vcr/bd
Vএর মান vc অপেক্ষা কম হলে স্ল্যাবটি নিরাপদ।
অতএব, vc=0.292(route over f’c)
 
ধাপ ৭: বন্ড স্ট্রেস
বন্ড স্ট্রেস এর মান,u=V/summation of 0 x jd
Summation of 0=NxpaixD      [N=b/s]
প্রাপ্ত বন্ড স্ট্রেস  এর পরিমান সর্বদা অনুমোদনযোগ্য বন্ড স্ট্রেসের চেয়ে কম হবে।
 
অনুমোদনযোগ্য বন্ড পীড়ন:
  • টপ বারের ক্ষেত্রে,=2.29xroute over f’c/D এবং সর্বোচ্চ 24.6 কেজি/বর্গসেমি
  • অন্যান্য বারের ক্ষেত্রে,=3.23xroute over f’c/D এবং সর্বোচ্চ 35.2 কেজি/বর্গসেমি
এখানে D= প্রধান রডের ব্যাস
 
ধাপ ৮: সংকোচন তাপ রডের ক্ষেত্রফল
  • মসৃণ বারের ক্ষেত্রে A’s= 0.0025bt
  • ডিফর্মড বারের ক্ষেত্রে A’s= 0.0018bt থেকে 0.002bt 
তাপ রডের ব্যবধান s=100as/A’s
এখানে, as=একটি তাপ রডের প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফল, ACI কোড অনুযায়ী তাপ রডের সর্বোেচ্চ ব্যবধান স্ল্যাব 
পুরুত্বের ৫ গুন অথবা 45 সেমি এর বেশি না। ‍
 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

16 − fourteen =